Inside Jimmy Kimmel’s Daily Routine: Waffles, Jokes, and Back Pain Relief

Photo Courtesy: npr.org

Jimmy Kimmel is an American television host, comedian, writer, and producer. He is best known for hosting the late-night talk show “Jimmy Kimmel Live!” on ABC since 2003. Kimmel has also hosted several other television shows, including “The Man Show” and “Win Ben Stein’s Money,” and has been a frequent host of award shows like the Emmy Awards and the Academy Awards. He is known for his satirical humor, celebrity interviews, and viral comedy sketches.

  • Jimmy Kimmel celebrated the 20th anniversary of his late-night talk show earlier this year.
  • Kimmel’s son wakes up around 6:30-7:03 a.m. and he usually makes waffles or pancakes for his kids in the morning.
  • Kimmel receives a packet of jokes and ideas from his writers at 9:15 a.m. and whittles it down to a four- or five-page document before sending it to his head writers around 10 a.m.
  • Kimmel has a Zoom meeting with his segment producers at 10:15 a.m.
  • Kimmel has a chant with his team before every show, ending with the words “Best show ever.”
  • Kimmel reads the book “Healing Back Pain” by Dr. John E. Sarno and found relief from his back pain after taking notes and highlighting important information.
  • Kimmel’s must-haves for Mondays include a waffle iron, Sonicare electric toothbrush, Oura ring, Terra Kaffe coffee maker, and Sirius XM on Amazon Echo.

The Power of Detachment: Finding Joy in the Journey.

“Desire is a contract that you make with yourself to be unhappy until you get what you want.” – Naval Ravikant

Naval Ravikant

In simple terms, the actionable strategy of practicing detachment from your desires means that you should not become too attached to the outcome of a particular goal that you have set for yourself. While it’s okay to have goals and dreams, it’s important to understand that you can’t control everything in life and that attaching yourself too strongly to a specific outcome can actually make you unhappy.

Instead, it’s important to focus on the process of working towards your goals, and to find joy and fulfillment in the journey. This means that you should enjoy the experience of working towards your goals, even if the end result is uncertain. You should focus on taking positive actions every day, rather than obsessing over the end result.

Ultimately, practicing detachment from your desires means finding balance in your life. You should strive to achieve your goals while also staying grounded and present in the moment. By doing this, you can enjoy the journey of life and find true happiness and fulfillment.

J k Rawling – the creator of highest selling book in the world history, Harry potter

we can think of  of J.K. Rowling, the author of the Harry Potter series. Before achieving massive success as a writer, Rowling faced numerous rejections from publishers and struggled financially as a single mother.

Despite the setbacks and challenges, Rowling continued to focus on the process of writing and refining her craft, rather than becoming too attached to the outcome of being published. She found joy and fulfillment in the act of writing, and remained dedicated to her work even when it seemed unlikely that she would achieve her goals.

In the end, Rowling’s dedication and detachment paid off. Her Harry Potter series became a global phenomenon and made her one of the most successful authors of all time. However, it was her focus on the process of writing and her love for the craft that allowed her to achieve such success.

Rowling’s story illustrates the importance of detachment from desires and the power of focusing on the journey rather than the outcome. By staying committed to the process and finding joy in the work itself, she was able to achieve her goals and find lasting success.

Here are five facts about J.K. Rowling and the Harry Potter series:

  1. J.K. Rowling wrote the first Harry Potter book while she was a struggling single mother on welfare. The idea for the story came to her during a train ride, and she spent the next several years working on the manuscript in cafes and other public places.
  2. The first Harry Potter book, “Harry Potter and the Philosopher’s Stone” (known as “Harry Potter and the Sorcerer’s Stone” in the U.S.), was published in 1997. It was an immediate success, winning numerous awards and spawning a seven-book series that sold over 500 million copies worldwide.
  3. The Harry Potter series has been adapted into a highly successful film franchise, with eight movies released between 2001 and 2011. The films have grossed over $7 billion worldwide, making Harry Potter one of the highest-grossing film franchises of all time.
  4. J.K. Rowling is known for her philanthropic work, and has donated millions of dollars to various charitable causes. She founded the charity Lumos, which works to improve the lives of disadvantaged children around the world.
  5. The Harry Potter series has had a major impact on popular culture, inspiring a devoted fanbase and influencing countless other works of fiction. The series has been translated into over 80 languages and has inspired theme parks, merchandise, and even academic courses.

To sum up, don’t tie your happiness to a specific outcome. Goals are great, but don’t forget to enjoy the journey towards achieving them. Take inspiration from J.K. Rowling’s story and focus on the process, find joy in the work, and success will come.

The more I read, the more i forget. then why should I keep reading?

This 2 minutes story has the answer.

Once upon a time, there was a young boy named Jack who loved to read. Jack spent most of his free time at the local library, where he would browse the shelves and check out as many books as he could carry.

As Jack got older, he noticed that he was having trouble remembering everything he read. He started to feel discouraged and wondered if reading was really worth his time.

One day, Jack stumbled upon a book about memory and the brain. The book explained that forgetting information is actually a natural part of the learning process, and that the brain needs repetition and reinforcement to retain information over the long-term.

Inspired by this idea, Jack decided to keep reading, even if he couldn’t remember everything he read. He continued to visit the library and read as much as he could, choosing books that interested him and challenged his thinking.

As he read more and more, Jack started to notice that he was able to connect ideas and concepts from different books, and that he was developing a deeper understanding of the world around him. He realized that reading was not just about memorizing information, but about building a rich and complex mental library of ideas and perspectives.

Years later, Jack became a successful entrepreneur and credited much of his success to his love of reading. He realized that even if he forgot some of what he read, the act of reading had expanded his mind and helped him think more critically and creatively.

The story of Jack highlights the fact that reading is not just about memorization, but about expanding our minds, broadening our perspectives, and challenging our thinking. Even if we forget some of what we read, the act of reading can still have a powerful and transformative impact on our lives.

Keep reading. keep smiling.

smiling boy with books

2 minutes to Key Takeaways from “The Almanack of Naval Ravikant”

Right now i am reading the book “ The Almanack of Naval Ravikant: A Guide to Wealth and Happiness” by   Eric Jorgenson

like opportunity, wisdom is everywhere. we just need to train our eye to see it

It is an amazing book, i want to share some wisdoms from the book that i have learned and everyone should know…

  1. “Desire is a contract you make with yourself to be unhappy until you get what you want.”
  2. “The purpose of a goal is not to get it, but to grow as a result of pursuing it.”
  3. “Happiness is a state of not wanting anything.” – keep your expectation low and appreciate what life throws at you every moment. 
  4. “Most of our suffering comes from resisting what is already here, particularly our feelings.”
  5. “The only real resource is time.” – we waste it the most. (this is my personal favorite)
  6. “You get paid for being right first, and to be first, you can’t wait for consensus.”
  7. “Happiness is the absence of desire. If you’re happy, you don’t want anything else.”
  8. “If you don’t have marketable skills, your degrees won’t help you.” – degree is just a piece of paper.
  9. “The world is full of opportunities, but they are not always obvious. Opportunities are often hidden in plain sight.”
  10. “Habits are the compound interest of self-improvement.”

Naval emphasized too much on “compounding”. be it knowledge, money, loyalty, royalty, reputation, career, business…..anything you name. if i can rummarize the whole book in one word, that will be “compounding.”

Is it the real world that you see now? How we view the world is an individual experience varies person to person

A family of 4 are walking on the road beside a sea beach.

The father is looking at the young girl in bikini with a perfect figure. In his mind “oh what a beauty! Alas! My wife was like her 10 years ago”

The wife was also looking at that girl but she is also looking at the boy with that girl. The boy use to be her boyfriend.  She is thinking “oh girl enjoy your life to your fullest, when you give birth, you will lose that perfect figure”

The 10-year-old son is looking at all the surfers over the big wave.

The 5-year-old daughter is looking at the ice cream parlor, she loooooves strawberry flavor.

They are all walking through the same place, same time…..

But….in their head…..its individual world…..the world according to their thought, desire, need, want, frustration, anticipation.

We don’t see the same thing, we only see what we are trained to see.

That’s why what a police officer can see looking at a criminal’s eye, we can’t see

What an accountant can see in a tax summery, we can’t see

Where a businessman can see the opportunity, we can see problem

Happy reading.

Attitude = 100

we all know this.

If ABCDEFGHIJKLMNOPQRSTUVWXYZ Is equal to 1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26

Hard Work = 8+1+18+4+23+15+18+11= 98%

Knowledge= 11+14+15+23+12+5+4+7+5= 96%

Love = 12+15+22+5= 54% Luck L+U+C+K 12+21+3+11= 47%

Money = 13+15+14+5+25= 72%

Leadership = 12+5+1+4+5+18+19+8+9+16= 89%

Finally,

Attitude = 1+20+20+9+20+21+4+5= 100%

everything changes when we change our attitude.

when we change our attitude towards food, we become healthy or fatty. it depends which attitude we take on. our attitude towards our job will make us a leader or just survivor. Our attitude towards life will make us joyful or depressing.

it all come down to attitude. Even how we drink our coffee or how much sugar we put in our tea is decided by our attitude towards our belief in our health.

Atomic Habits by James Clear : one key take away that can change our life….

ask yourself 1 set of questions – what are my core values? What am I doing now? Is that aligned to my core values?

Just finished reading the New York Times best seller “atomic habits” by James Clear. A book worth reading for everyone whether you are a billionaire or an average joe.

Every line worth underlined or highlighted. Normally I highlight all the important lines that I think I will come back later to reread. But for this book, after first chapter, I stopped doing that. Don’t want to highlight every line.

There are a lot of key take aways from this book. But if you do not have time to read the whole book, I can mention just one key point: ask yourself from now on – what are my core values? What am I doing now? Is that aligned to my core values?

Keep asking this question as many times as you can throughout the day. You will see slowly you pick this habit to be aware about your present time and you will only do those things that are important to your goals.

Happy reading.

আমাদের শিক্ষাব্যাবস্থা – কি হতে যাচ্ছে ভবিষ্যতে?

সারা পৃথিবীর শিক্ষাব্যাবস্থার চিত্রটাই মোটামুটি একই রকম

কেন আমাদের বেশির ভাগ শিক্ষকরা এত saddist ছিলেন?  তারা সামান্য পড়া না পারার জন্য পুরা ক্লাসের সামনে এমন ভাবে অপমান করতেন যেন আমরা খারাপ ছাত্রই শুধু না, আমরা মাত্রই মানুষ খুন করেছি।  জ্যামিতি ক্লাসে জ্যামিতি বক্স নিয়ে না আসার অপরাধে প্রথমে বেতের বাড়ি, তারপর যতক্ষণ ক্লাস শেষ না হয় ততক্ষণ কান ধরে বেঞ্চের উপর দাড়িয়ে থাকার মত ক্রিয়েটিভ শাস্তির আইডিয়া আমাদের শিক্ষকরা কোথা থেকে পেয়েছেন আমার জানা নেই। 

আচ্ছা কখনো কি চিন্তা করে দেখেছেন আমাদের শিক্ষা ব্যাবস্থা কেমন ধরনের মানুষ প্রডিউস করছে? যাদেরকে আমরা শিক্ষিত বলে জানি তাদের ভেতরটা আসলে কেমন? তারা কেমন ধরনের নলেজ নিয়ে বের হচ্ছে?

আমার স্কুল জীবনে আমি ৯৯% শিক্ষককে খুবই ভয় পেয়েছি, আমাদের সম্পর্ক ছিল ভয়ের, ভালবাসার না। কোন টিচার আমার মাথায় হাত রেখে কখনো আমাকে আশির্বাদ দেয় নাই, কিন্তু সামান্য ভুলে বেতের বাড়ি খেয়েছি বহুবার। এমনও হয়েছে, ক্লাসের পিছনে বসে কথা বলার অপরাধে মারতে মারতে  ক্লাসের সামনে থেকে পেছনে, আবার পেছন থেকে সামনে নিয়ে এসেছে, কানে ধরে পুরা স্কুলের সামনে বারান্দায় দাড় করিয়ে রেখেছে, চুলের মুঠি ধরে এত জোরে টান মেরেছে যে অনেকদিন সেই  পাশে কাত হয়ে ঘুমাতে পারতাম না।

আজকে এসএসসি পাশের প্রায় ২১ বছর পর সেই দিনগুলোর কথা যখন চিন্তা করি, তখন মনে হয় কেন আমাদের বেশির ভাগ শিক্ষকরা এত saddist ছিলেন?  তারা সামান্য পড়া না পারার জন্য পুরা ক্লাসের সামনে এমন ভাবে অপমান করতেন যেন আমরা খারাপ ছাত্রই শুধু না, আমরা মাত্রই মানুষ খুন করেছি।  জ্যামিতি ক্লাসে জ্যামিতি বক্স নিয়ে না আসার অপরাধে প্রথমে বেতের বাড়ি, তারপর যতক্ষণ ক্লাস শেষ না হয় ততক্ষণ কান ধরে বেঞ্চের উপর দাড়িয়ে থাকার মত ক্রিয়েটিভ শাস্তির আইডিয়া আমাদের শিক্ষকরা কোথা থেকে পেয়েছেন আমার জানা নেই। 

কিন্তু চিন্তা করে দেখেন, এই যে শিক্ষকরা ছাত্রদের সাথে এমন ব্যবহার করেন, কিসের জন্য? তারা আমার শিক্ষক কারণ তারা আমার চেয়ে হয়ত ১৫/২০/২৫ বছর আগে লেখা পড়া করেছেকন, শিক্ষকথা করছেন মানুষ গড়ার কারিগর হিসাবে।  আমি যদি তাদের মত ২০/২৫ বছর আগে জন্মাতাম, তাহলে ত তারা আমার শিক্ষক হতেন না।  সোজা কোথা, তারা আমার আগে জন্মেছেন বলেই আমার শিক্ষক হয়েছেন।  এতাইতো সবচে বড় যোগ্যতা তাইনা? তারা আমার আগে জন্মেছেন। তেমনি আজকে যারা শিক্ষক, ছোট ছোট বাচ্চাদের পড়াচ্ছেন, তারা এই বাচ্চাদের আগে জন্মেছেন বলেই এদের শিক্ষক হয়েছেন, বাচ্চাদের চেয়ে পরে জন্মালে তো আর এই বাচ্চাদের শিক্ষক হতেন না।

যা বলছিলাম আমাদের শিক্ষা ব্যাবস্থা সম্পর্কে। আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা এমন ভাবে সাজানো হয়েছে (আমি শুধু বাংলাদেশের কোথা বলছি না, প্রায় পুরা বিশ্বের শিক্ষা ব্যাবস্থাই অনেকটা এমন) এখানে মেমরি বা মনে রাখার প্রয়োজনীয়তা সবচে বেশি। যে যত বেশি মনে রাখতে পারবে, তার ভ্যালু তত বেশি। এখানে নতুন  নলেজ সৃষ্টি করার চেয়ে পুরাণ যা আছে তাই মুখস্ত করে চলার নিতিতে বেশি জোর দেওয়া হয়। পুরা শিক্ষা ব্যাবস্থাই এমন ভাবে করা হয়েছে যে আপনি এখান থেকে ঠিক মত বের হতে পারলে ভাল একজন employee হবেন এই ব্যাপারে কোন সন্দেহ নাই, এমনকি আমাদের সমাজ ব্যাবস্থাও আপনাকে বাহবা দিনে ভাল employee  হুয়ার জন্য।  ব্যাঙ্ক আপনাকে লোন দিবে যদি আপনার রেগুলার জব থাকে, আর যদি আপনি ব্যাবসা করেন, যেখানে লাভ লস সব আছে তখন ব্যাঙ্ক আপনাকে লোণ দিতে অনেক হিসাব নিকাষ করবে। 

রকফেলার ছিলেন আধুনিক আমেরিকার শিক্ষা ব্যাবস্থা ঢেলে সাজানোর মুল কারিগর। রকফেলার তৎকালীন আমেরিকার শিক্ষা মন্ত্রীকে আদেশ দিয়েছিলেন যে এমন একটা শিক্ষা ব্যাবস্থা বানানো হয় যেখানে তার কল কারখানা চালানোর জন্য কখনো ইঞ্জিনিয়ারের কমতি না হয়। অর্থাৎ ভাল employe  গড়ে তোলাই ছিল রকফেলারের মেইন উদ্দেশ্য।

সামনে কি অপেক্ষা করছে এই শিক্ষা ব্যাবস্থা থেকে যারা বের হয়েছে তাদের জন্য?

একটা সময় ছিল যখন কলকারখানায় মানুষ কাজ করত। গাড়ি তৈরি হত সম্পুর্ন মানুষের হাত দিয়ে। আস্তে আস্তে গত ৫০/৬০ বছরে কলকারখানায় মানুষের জায়গাগুলা মেশিন নিতে আরম্ভ করল। মানুষ চাকরি হারাতে শুরু করল। প্রথম প্রথম খুব আন্দোলন হত, কিন্তু পড়ে দেখা গেল যে এটাই নরমাল নিয়মে পরিণত হয়েছে।  প্রথম যখন চট্টগ্রাম বন্দরে ক্রেইন বসানো হল, তখন শ্রমিকরা অনেক আন্দোলন করল কারণ তারা জব হারাবে। কিন্তু লাভ হয় নাই, বন্দরের কর্মকাণ্ড অনেক বেশি গতিশীল হল ক্রেইন বসানর পড়। যে জাহাজ খালি করতে আগে শ্রমিকদের ২ দিন লাগত, সে জাহাজ খালি করতে ক্রেইনের লাগল দুই ঘণ্টা, ফলে বন্দরে অনেক বেশি জাহাজ ভিড়তে লাগল, সরকারের রাজস্ব আয় বাড়ল।

এখন জারা জব করছে তাদের জন্য হুমকি হয়ে এসেছে আর্টিফিসিয়াল ইন্টালিজেন্স। জারাই এখন মেমোরি বেইজড কাজ করছে, মোটামুটি সবাই জব হারাবে। কিন্তু জারা সত্যিকারের ক্রিয়েটিভ কাজ করছে, যেমন আর্টিস্ট, তাদের কাজ রোবট এত সহজে করতে পারবে না এখনো, কিন্তু ইঞ্জিনিয়ার থেকে শুরু করে অনেক জব  চলে যাবে রোবটদের দখলে, শিক্ষকদের দরকার হবে না ক্লাস করানোর, কারণ রোবটের মেমোরি অনেক বেশি দক্ষ শিক্ষকদের মেমোরির থেকে। রোবট ক্লাসে এসে অঙ্ক বিজ্ঞান সব গর গর করে পড়াবে বাচ্চাদের। তাই কি এখন শিক্ষকরা আন্দোলন শুরু করবে?  ইতিমদ্যেই সালমান খান একাডেমী দেখিয়ে দিয়ছে শুধুমাত্র ইউটিউবকে ব্যবহার করে কি ভাবে একজায়গা থেকে সারা পৃথিবীর বাচ্চাদের পড়ালেখা শেখানো যায়, কোন ক্লাস রুমের দরকার নাই, দরকার শুধুমাত্র একটা কম্পিউটার, সাথে ইন্টারনেট এবং নিজের সদিচ্ছা।

আসলে টেকনোলজি একটা চমৎকার জিনিস যদি আমরা তাকে ঠিকমত ব্যবহার করতে পারি। মানুষ যেদিন থেকে আগুণ আবিষ্কার করেছে, সেদিন থেকে সভ্যতা তরতর করে সামনের দিকে এগিয়ে গিয়েছে। আবার এই আগুণ লেগে অস্ট্রেলিয়া আর আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়াতে প্রতিবছর বুশ ফায়ারে কত শত প্রাণী এবং মানুষ মারা যাচ্ছে, তাতে আগুণের দোষ কতটা আবার মানুষের কর্মের ফলে প্রকৃতির পরিবর্তনের প্রভাব কতটা ?  একটা ছুরি দিয়ে আমরা একটা আম কেটে খেয়ে আমাদের জীবন বাঁচাতে পারি আবার সে একই ছুরি দিয়ে মানুষ খুন করতে পারি। এখানে ছুরির কোন দোষ নাই, দোষ যে ব্যাবহার করছে  তার, ঠিক সেই ভাবে টেকনোলজির কোন দোষ থাকতে পারে না, দোষ যদি কাওকে দিতেই হয় তবে তা হবে মানুষের, আরও ভাল ভাবে বললে তথাকথিত শিক্ষিত মানুষের।  

শেষ করার আগে একটা প্রশ্ন। আচ্ছা এখন পর্যন্ত এই পৃথিবীর যত ক্ষতি করা হয়েছে (global warming, 1st and second world war, any sort of war/atomic war/religious/ethnic war etc) , তা কারা করেছে? শিক্ষিত মানুষ নাকি অশিক্ষিতের জাত?

ছবি :https://www.youtube.com/watch?v=LTAvi4ZAHxU

pictures with deep meaning

 

fake friend
the biggest curs in your life are fake friends. 

Spirit of learning: feel the gratitude about your learning opportunity. many don’t have

 

sometimes stay back to save others.

most of the people in your life will just act as if they are helping you

that is what most of the people doing nowadays….consume consume consume

know thyself before judging others. Judging others is the only this we are doing tirelessly

if your parents are alive, feel the gratitude. Let them know that you love them.

life is like an icecream. enjoy it before it melts. Nobody can’t ignore the reality of life. Be prepared for it

the beginning and the ending of life are the same

We are all same inside. even true for LGBT and straight community

Don’t ignore depression, take care of the depressed people around you.

all the pictures were taken from the web.

Elixir of Life in Humayun Ahmed’s writing

Elixir of life in Humayun Ahmed’s writing
Elixir of life in Humayun Ahmed’s writing

 

হোলি গ্রেইল শব্দটা প্রথম শুনি ইন্ডিয়ানা জোনসের মুভি থেকে. এর অর্থ হলো এই পানীয় পান করলে নাকি মানুষ হাজার বছর বাঁচতে পারে. এই দুনিয়ার সবচে বড়ো জোক হলো আমরা সবাই হুরপরীর লোভে বেহেস্তে যেতে চাই কিন্তু কেও মরতে চাই না.

হুমায়ুন আহমেদ একবার টাইম ম্যাগাজিনের একটা কপি হাতে পেলেন, 2011 সালের ঘটনা. সে সংখ্যার প্রচ্ছদ প্রতিবেদন ছিল মানুষ ২০৪৫ সালে বিজ্ঞানের এতই উন্নতি করবে যে মানুষ আর মরবে না. মানুষ সিঙ্গুলারিটিতে পৌঁছাবে যেখানে ফিজিক্সের কোন সূত্র আর কাজ করবে না. হুমায়ুন আহমেদ দুঃখ করে বলেছিলেন আহা আমি আর বাঁচবো না ততদিন, এই দুনিয়াতে ফিনিক ফোটা জোছনা আমার দেখা হবে না.

লেখাটি হুমায়ূন আহমেদের বই “লীলাবতীর মৃত্যু” থেকে নেওয়া হয়েছে.